01400-786162 , 01400-786163
tech dental final logo
হলুদ দাঁত সাদা করার উপায়

দাঁত কেন হলুদ  হয়?

মুখের সৌন্দর্য অনেকটা নির্ভর করে আমাদের দাঁতের ওপর। দাঁতের স্বাভাবিক রং পরিবর্তিত হলে তা অবশ্যই আমাদের বাহ্যিক সৌন্দর্যেও প্রভাব ফেলে। নিজেকে সুন্দর করে তুলে ধরতে ঝকঝকে দাঁতের মুক্তোঝরা হাসিই যথেষ্ট। দাঁতের রঙের পরিবর্তন দেখতে খারাপ লাগে। অনেকে তখন হাসতেও সংকোচবোধ করেন। দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা না বুঝলে পরে বিপদে পড়তে হয়, এই কথা সবাই জানেন। দাঁত সুস্থ, সবল, পরিষ্কার ও উজ্জ্বল করতে যখন প্রাকৃতিক কিংবা ঘরোয়া পদ্ধতি কাজে না দেয় তখন হলুদ কিংবা কালচে দাঁত সাদা করতে চাইলে ডাক্তারের এর শরণাপন্ন হতে হয়।  

দাঁত সাদা করার কার্যকরী চিকিৎসা পদ্ধতিঃ

  • সিগারেট কিংবা পান বা অন্যান্য বস্তু গ্রহণের ফলে দাঁতের রং পরিবর্তিত হয়ে থাকলে একজন দন্তচিকিৎসকের কাছে গিয়ে স্কেলিং ও পলিশিং করে দাঁতগুলো আবার ঝকঝকে করে নিতে পারেন। ওষুধজনিত কারণে দাঁতের রং পরিবর্তিত হয়ে থাকলে দাঁতে ভেনিয়ার কিংবা ক্রাউন (ক্যাপ) করে সুন্দর ঝকঝকে করা যায়।
  • দন্তমজ্জা নষ্ট হওয়া দাঁত কিংবা আঘাতজনিত কারণে দন্তমজ্জা নষ্ট হয়েছে ও পরে রুট ক্যানেল করা হয়েছে কিংবা রুট ক্যানেলের ফলে দাঁতের রং পরিবর্তন হয়েছে, সেসব ক্ষেত্রে ‘টুথ ব্লিচিং-এর মাধ্যমে দাঁত সাদা করা যায়।
  • যদি দাঁতের ব্লিচিং পদ্ধতি সম্ভব না হয়, তবে লাইট কিউর ফিলিং বা কালার ম্যাচিং ফিলিংয়ের মাধ্যমেও দাঁত সাদা করা যায়। কালার ম্যাচিং ফিলিং ডেন্টাল সায়েন্সে দাঁত সাদা করার সবচেয়ে আধুনিক চিকিৎসা। এটা আগে উন্নত বিশ্বে থাকলেও বর্তমানে বাংলাদেশে এই পদ্ধতিতে দাঁত সাদা করা যাচ্ছে।
  • দাঁতে কোন প্রকার অসুবিধা বোধ করলে অবহেলা না করে দ্রুত একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং দাঁতের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করুন।

দাঁত হলুদ হওয়ার কারণগুলো কি কিঃ

  • অনেকসময় জিনগত কারণে দাঁত হলুদ দেখায়। যদি আপনার বাবা-মায়ের দাঁত হলুদ থাকে তাহলে আপনার দাঁতের হলদেটে ভাবও দূর করা মুশকিল। সঠিক নিয়মে দাঁত ব্রাশ না করলে কিংবা পানিতে ফ্লুরাইডের পরিমাণ বেশি থাকলেও দাঁত হলুদ হতে পারে।
  • ঘন ঘন চা খেলে দাঁত তার স্বাভাবিক রঙ হারিয়ে ফেলে। তখন দাঁত হলদেটে দেখায়।
  • ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল বেশি খেলে দাঁতের রঙ নষ্ট হয়ে যায়।
  • অতিরিক্ত মিষ্টি খেলেও দাঁত হলুদ হতে পারে। কারণ মিষ্টি শুধু ক্যাভিটি সৃষ্টি করে না, দাঁতের এনামেলও নষ্ট করে দেয়। তখন দাঁতে হলদেটে ভাব দেখা যায়।
  • অনেকেই মনে করেন দিনে একবার ব্রাশ করাই যথেষ্ট। কিন্তু রাতে ব্রাশ না করলে দাঁতের স্বাস্থ্য নষ্ট হয়।সেই সঙ্গে দাঁতও হলুদ দেখায়।
  • অতিরিক্ত সফট ড্রিংক্স দাঁতের ক্ষতি করে।
  • অতিরিক্ত ধূমপানে দাঁতের ক্ষয় হয়। সেই সঙ্গে দাঁতে হলদেটে ভাবও দেখা দেয়।

দাঁত সাদা করার  চিকিৎসার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াঃ

  • দাঁত সাদা করার  চিকিৎসায় কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই।

কত সময় পুরো প্রক্রিয়াটি শেষ হয়ঃ

  • সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি শেষ হতে  ১:০০ - ১:৩০ ঘণ্টা সময় প্রয়োজন হয়।    

দাঁত সাদা করার  চিকিৎসা মোট খরচঃ

  • দাঁত সাদা করা  চিকিৎসার খরচ ১২,০০০/= ( বারো হাজার) থেকে  ২০,০০০/=  (বিশ হাজার)  টাকা পর্যন্ত ।  ক্লিনিক ভেদে  দাঁত সাদা করার  চিকিৎসার খরচ ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে।    

দাঁত সাদা করার  চিকিৎসা টেক ডেন্টালে কেন করবেনঃ   

  • আমরা প্রত্যেক রোগীর জন্য আলাদা আলাদা  যন্ত্রপাতি একবার ব্যবহার করি যা দ্বিতীয়বার  আর ব্যবহার হয় না। সম্মানিত রোগীদের জন্য যন্ত্রপাতি গুলো সর্বোচ্চ জীবাণূমুক্তকরণ পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকি। উন্নত মানের ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার নিশ্চিতের পাশাপাশি অভিজ্ঞ ডেন্টাল সার্জন দ্বারা চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *